বিকাশ সেভিংস একাউন্ট ডিপিএস খোলার ফিচার সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন

বিকাশ সেভিংস একাউন্ট ডিপিএস খোলার ফিচার সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন

বিকাশ সেভিংস একাউন্ট ডিপিএস খোলার ফিচার সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন

বিকাশ অ্যাপের মধ্যে সেভিংস স্কিম বা ডিপিএস খোলার সুযোগ রয়েছে। বিকাশ অ্যাপ ব্যবহার করে আইডিএলসি তে টাকা জমানো যাবে। কোনো বাড়তি ঝামেলা ছাড়া ঘরে বসে এই সেভিংস বা টাকা সঞ্চয় করার স্কিম পরিচালনা করা যাবে। চলুন জেনে নেওয়া যাক বিকাশ সেভিংস সম্পর্কে বিস্তারিত।

বিকাশ সেভিংস স্কিম কি? বিকাশ ডিপিএস পরিচিতি

অন্য যেকোনো সেভিংস স্কিম এর মত বিকাশ সেভিংস স্কিম কাজ করে। প্রতিমাসে একটি নির্দিষ্ট অংকের অর্থ বিকাশ একাউন্ট থেকে কেটে নেওয়া হবে ও তা জমা হবে সেভিংস স্কিম একাউন্টে। সেভিংস স্কিম এর মেয়াদ শেষ হয়ে গেলে জমানো টাকা বিকাশ একাউন্টে সুদ সহ ফেরত চলে আসবে। আবার এই টাকা ক্যাশ আউট করতে কোনো বাড়তি খরচ ও লাগবেনা।

বিকাশ ও আইডিএলসি ফাইন্যান্স লিমিটেড পার্টনারশিপের মাধ্যমে এই সেভিংস স্কিম সুবিধা প্রদান করছে যা বিকাশ অ্যাপ থেকে পরিচালনা করা যাবে। প্রতি মাসে সর্বনিম্ন ৫০০টাকা থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ৩,০০০টাকা পর্যন্ত অর্থ সেভিংস একাউন্টে জমা রাখা যাবে।

সেভিংস একাউন্টের মেয়াদ হতে পারে, ২, ৩ বা ৪ বছর। এটাকে বিকাশের মাধ্যমে ডিপিএস ও বলা যায় সহজভাবে বুঝানোর জন্য। বিকাশ সেভিংস স্কিম এর মেয়াদ শেষে কোনো খরচ ছাড়া সম্পূর্ণ অর্থ ক্যাশ আউট করা যাবে। তবে দেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ী এআইটি ও আবগারী ট্যাক্স প্রযোজ্য হবে। এবার জেনে নেওয়া যাক বিকাশ অ্যাপ ব্যবহার করে টাকা জমানোর নিয়ম সম্পর্কে।

বিকাশ অ্যাপ দিয়ে টাকা জমানোর নিয়ম – বিকাশ ডিপিএস খোলার নিয়ম

বিকাশ অ্যাপ থেকে সেভিংস স্কিম খোলা যাবে। বর্তমানে আইডিএলসির সাথে এই স্কিম ওপেন করা যাচ্ছে। ভবিষ্যতে হয়ত আরও প্রতিষ্ঠান এই তালিকায় যুক্ত হবে।

[★★]  মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার উপায় জানতে এখানে ক্লিক করুন 

বিকাশ অ্যাপ দিয়ে টাকা জমানোর উদ্দেশ্যে সেভিংস স্কিম খুলতে গ্রাহককে যা করতে হবেঃ

বিকাশে ডিপিএস খোলার ফিচার 'বিকাশ সেভিংস' সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন
  • বিকাশ অ্যাপে প্রবেশ করুন ও হোমস্ক্রিন থেকে “সেভিংস” আইকনে ট্যাপ করুন
  • এরপর নিয়ম ও শর্তাবলীতে সম্মতি দিয়ে এগিয়ে যান
  • “নতুন সেভিংস স্কিম খুলুন” অপশনে ট্যাপ করুন
  • এরপর সেভিংস এর সময়কাল (২/৩/৪বছর) ও জমার ধরন (মাসিক) সিলেক্ট করুন
  • প্রতি মাসে কি পরিমাণ টাকা (৫০০/১,০০০/২,০০০/৩,০০০) জমা রাখবেন তা নির্বাচন করুন
  • এরপর মোট জমার তথ্য দেখানো হবে, এগিয়ে যান
  • এরপর নমিনি সংক্রান্ত তথ্য প্রদান করতে হবে, প্রয়োজনীয় সকল তথ্য সঠিকভাবে প্রদান করুন
  • সেভিংস এর উদ্দেশ্য সিলেক্ট করুন
  • সেভিংস সামারি তে সকল তথ্য প্রদর্শিত হবে, সকল তথ্য সঠিকভাবে দেওয়া হয়েছে কিনা তা নিশ্চিত করুন
  • নিয়ম ও শর্তাবলী ভালোভাবে পড়ুন, এরপর সম্মতি দিন
  • বিকাশ একাউন্টের পিন প্রদান করুন
  • সবশেষে স্ক্রিনের নিচের অংশে প্রদর্শিত অপশনে ট্যাপ করে ধরে রাখুন

উল্লেখিত নিয়ম অনুসরণ করে বিকাশ সেভিংস স্কিম খোলা সফল হলে বিকাশ ও আইডিএলসি থেকে কনফার্মেশন এসএমএস পাবেন। ব্যাস, খোলা হয়ে গেলো আপনার ডিজিটাল সেভিংস স্কিম বা বিকাশ ডিপিএস।

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

সেভিংস স্কিম সম্পর্কিত নিয়ম ও শর্তাবলী

আইডিএলসি ও বিকাশ এর সম্মিলিত প্রচেষ্টায় তৈরী এই সেভিংস স্কিম এর কিছু নিয়ম ও শর্তাবলী রয়েছে। চলুন সহজ ভাষায় বিকাশ সেভিংস স্কিম এর নিয়ম ও শর্তাবলী সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

  • একটি বিকাশ একাউন্ট থেকে একাধিক সেভিংস স্কিম খোলা সুযোগ রয়েছে
  • প্রয়োজনে সেভিংস স্কিমের নমিনির তথ্য পরিবর্তন করা যাবে
  • সেভিংস স্কিমের ক্ষেত্রে বিকাশ বা আইডিএলসি কোনো ধরনের বাড়তি চার্জ করেনা
  • বিকাশ অ্যাপের সেভিংস সেকশন হতে ইটিআইএন তথ্য আপডেট করলে সেক্ষেত্রে সেভিংস স্কিম থেকে অর্জির লাভের উৎসে অপেক্ষাকৃত কম ট্যাক্স প্রযোজ্য হবে
  • সেভিংস স্কিমের মেয়াদ শেষে কোনো ক্যাশ আউট খরচ ছাড়া লাভসহ জমা রাখা সম্পূর্ণ অর্থ তোলা যাবে
  • সেভিংস স্কিম খোলার প্রথম তিনমাস অতিবাহিত হওয়ার আগে সেভিংস স্কিম বাতিল করা যাবেনা
  • সেভিংস স্কিমের মেয়াদ শেষ হওয়ার আগে সেভিংস স্কিম বাতিল করলে সেক্ষেত্রে মুনাফা নাও পেতে পারেন
  • বিকাশ একাউন্টে পর্যাপ্ত অর্থ না থাকলে সর্বোচ্চ দুইদিন সময় পাওয়া যাবে একাউন্টে ক্যাশ ইন করে সেভিংস স্কিমে অর্থ ট্রান্সফার করার। এর মধ্যে সেভিংস স্কিমের অর্থ প্রদানে ব্যর্থ হলে উক্ত আমানতের পরিমাণের উপর মুনাফা প্রদান করা হবেনা

👉 বিকাশ লোন নেওয়ার উপায় – জামানত ছাড়া সিটি ব্যাংক ও বিকাশ ঋণ!

বিকাশ ডিপিএস এ সুদের পরিমাণ

বিকাশ সেভিংস ফিচার ব্যবহার করে গ্রাহক আইডিএলসিতে যে টাকা সঞ্চয় করবেন তার জন্য গ্রাহককে সুদ দেওয়া হবে।

বিকাশ ডিপিএস একটি সঞ্চয়কারী সার্ভিস যেখানে গ্রাহক মাসিক ভিত্তিতে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ সঞ্চয় করতে পারবেন। আইডিএলসসি ও বিকাশ সেভিংস এর ক্ষেত্রে গ্রাহক ৭% ইন্টারেস্ট বা সুদ (বার্ষিক হিসাবে) পাবেন।

DLC তে বিকাশের মাধ্যমে রয়েছে মান্থলি ৫০০, ১০০০, ২০০০ অথবা ৩০০০ টাকার DPS ফ্যাসিলিটি যা ২৪, ৩৬ অথবা ৪৮ মাসের জন্য আইডিএলসি দিয়ে থাকে। আরও বিস্তারিত তথ্য জানতে আইডিএলসসি হটলাইন 16409 (রবি-বৃহস্পতিবার সকাল 9am-10pm) নম্বরে যোগাযোগ করা যেতে পারে। এছাড়া বিকাশের এই অফিসিয়াল ওয়েবপেজ থেকেও কিছু তথ্য পাওয়া যাবে।

Posts created 2321

One thought on “বিকাশ সেভিংস একাউন্ট ডিপিএস খোলার ফিচার সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Related Posts

Begin typing your search term above and press enter to search. Press ESC to cancel.

Back To Top
(Official) Jhumka Jhule Kane Haay Song Lyrics ঝুমকা ঝুলে কানে হায় লিরিক্স shab e barat 2023 namaj koto rakat Xiaomi Bangladesh realme narzo 50i prime,Review,Processor,Picture,black,gsmarena,wallpaper,price in bangladesh World Refugee Day 2022: When did it begin? What is the theme of the year?