বিকাশ দিয়ে ১০ হাজার টাকা ঋণ পাওয়ার নিয়ম।বিকাশ লোন ফরম ২০২২

বিকাশ লোন ২০২২,বিকাশ দিয়ে ১০ হাজার টাকা ঋণ পাওয়ার নিয়ম।বিকাশ লোন ফরম।বিকাশ, রকেট এসব সেবার হাত ধরে দেশে ডিজিটাল ব্যাংকিং সেবা এসেছে অনেক আগে। কিন্তু এতোদিন ডিজিটাল ঝণ এর ফিচার না থাকায় পরিপূর্ণ ব্যাংকিং সেবা উপভোগ করতে পারেননি ডিজিটাল ব্যাংকিং ব্যবহারকারীগণ। অবশেষে বিকাশ ও সিটি ব্যাংকের হাত ধরে এই অবস্থার অবসান ঘটতে যাচ্ছে। বিকাশ ও সিটি ব্যাংক চালু করল ডিজিটাল ন্যানো লোন বা ক্ষুদ্র ঝণ।

আমনি হয়তো অনেক সময় অনাকাঙ্ক্ষিত বিপদে পড়েছেন। সেই সময় আপনার প্রয়োজন মোটামুটি ভালো এমাউন্টের টাকা। কিন্তু আপনার কাছে কোনো টাকা নেই। এমনকি আপনি আপনার কোনো আত্নীয় স্বজন বা বন্ধ বান্ধবদের কাছ থেকে আপনি টাকা সংগ্রহ করতে পারছেন না। ঠিক এমন অবস্থায় বা অন্য যেকোনো পরিস্থিতিতে আপনি চাইলে বিকাশ থেকে ১০ হাজার টাকা ঋণ পারবেন। হ্যা,আপনি ঠিকই দেখছেন। অবিশ্বাস্য হলেও এটাও সত্যি। লেখাটি পড়তে থাকুন তাহলে আপনিও বিশ্বাস করবেন। 

বিকাশ অ্যাপ ব্যবহার করে ডিজিটাল ন্যানো লোন নেয়ার পদ্ধতি। বিকাশ লোন নেওয়ার উপায়

এতোদিন আমি এবং আপনি দুইজনই জানতাম যে বিকাশ হলো একটি মোবাইল ব্যাংকিং সিস্টেম। যার মাধ্যমে আপনি চাইলে আপনার নিজের মোবাইল টাকা রিচার্জ করতে পারবেন অথবা অন্য কারো মোবাইলে টাকা রিচার্জ করে দিতে পারতেন। পাশাপাশি আপনি এক বিকাশ একাউন্ট থেকে অন্য বিকাশ একাউন্টে চাইলে দিন রাত যেকোনো সময়ে টাকা পাঠাতে পারতেন। এছাড়াও আপনি বিভিন্ন অনলাইন পেমেন্ট বা বিভিন্ন বিল দিতে পারতেন এবং আরও অন্যান্য কাজে ব্যবহার করতেন। কিন্তু বিকাশ কোম্পানি কিছু দিন হলো একটা নিয়ম বের করলো যে তারা এখন থেকে তাদের গ্রাহকদের লোন দিবে দশ হাজার টাকা পর্যন্ত। 

কিন্তু আপনি চাইলেই তো আর দশ হাজার টাকা বিকাশ থেকে ঋণ নিতে পারবেন না। আপনাকে কিছু নিয়ম কানুন মানতে হবে। এবং জানতে হবে কোন ধরনের বিকাশ একাউন্ট ঋণ নিতে পারবে আর কোন ধরনের বিকাশ একাউন্ট ঋণ নিতে পারবে না। আরও জানতে হবে আপনি যদি বিকাশ থেকে ঋণ গ্রহণ করেন সেই ঋণ কিভাবে পরিশোধ করবেন?এই সকল প্রশ্নের উত্তর নিয়ে আজকের আর্টিকেল সাজানো। তাই আজকের আর্টিকেল টি একেবারে শেষ পর্যন্ত পড়ার জন্য অনুরোধ রইলো। 

বিকাশ থেকে দশ হাজার টাকা লোন কারা নিতে পারবে?আপনার জেনে রাখা উচিত বিকাশ থেকে দশ হাজার টাকা ঋণ নেওয়ার এই বিষয়টা কোন মানুষ দেখবে না। এটা বিকাশের যে এ আই বা আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স রয়েছে সে ঠিক করবে।এ আই কিভাবে ঠিক করবে আপনার মনে প্রশ্ন এসেছে তাই না? এ আই আপনার রিসেন্ট অ্যাক্টিভিটি দেখে এটা ঠিক করবে। অর্থাৎ আপনি বিগত দিনে কতো টাকা ক্যাশ আউট করেছেন কতো টাকা মোবাইল রিচার্জ করেছেন বা সেন্ড মানি করেছেন এসব বিষয় দেখে ঠিক করবে আপনি লোনের জন্য উপযোগী না অনুপযোগী। 

সিটি ব্যাংক বিকাশ ঋণ আবেদন অনলাইন নেয়ার পদ্ধতি উপায়

এখন আপনি কিভাবে চেক করবেন আপনি লোনের জন্য উপযোগী কিনা? এটা চেক করার জন্য আপনি আপনার বিকাশ অ্যাপস টা ওপেন করে নিবেন। ওপেন করার পর সেখানে অনেকগুলো অপশন দেখতে পারবেন সেখান থেকে আরও তে ক্লিক করলে আপনি লোন নামক একটা অপশন দেখতে পাবেন সেখান থেকে আপনি চাইলে লোনের জন্য অ্যাপ্লাই করতে পারেন।আর যদি আপনি বিকাশ এপস এর হোমপেজে এবং আরো তে ক্লিক করার পর লোন নামক অপশন না দেখতে পান তাহলে আপনি ধরে নিতে পারেন আপনি বিকাশ এর লোনের জন্য অনুপোযোগী।

যদি আপনি অনুপযোগী হয়ে থাকেন তাহলে আপনি কিছু কাজ করতে পারেন। যেমন আপনি বেশি বেশি করে মোবাইল রিচার্জ করতে পারেন কিংবা বেশি বেশি করে ক্যাশ আউট বা সেন্ড মানি অর্থাৎ বিকাশে যে সকল  ব্যাংকিং করার অপশন রয়েছে আপনি চাইলে সেগুলো ঘন ঘন করতে পারেন। তাহলে আপনিও লোন অপশন টা পেতে পারেন নিশ্চিত নয়। তবে মনে রাখবেন এটা বিকাশের অফিসের কোনো তথ্য না এটা আমার ব্যক্তিগত মতামত।

বিকাশে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করার নিয়ম 2022

এবার আপনি যদি বিকাশের লোন নেওয়ার অপশন পেয়ে যান তাহলে আপনি কিভাবে লোন নিবেন বা কিভাবে লোনের টাকাটা হাতে পাবেন। এখানে লোন নেওয়ার জন্য কোন প্রকার কাগজপত্র প্রয়োজন হবেনা। আপনি সেই লোন অপশন এর উপরে ক্লিক করে আপনার টাকার পরিমাণ লিখলে সিটি ব্যাংক থেকে আপনার বিকাশ একাউন্টে আপনি যে পরিমাণ টাকা লিখেছেন সেই টাকা চলে আসবে।

মোবাইলে বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২২

এতক্ষণে তো নিশ্চয়ই আপনি টাকা আপনার বিকাশ একাউন্টে নিয়ে এসেছেন। যেহেতু নিয়ে এসেছেন আপনাকে তো অবশ্যই পরিশোধ করতে হবে। আপনাকে বিকাশ থেকে যে পরিমান টাকা লোন দেওয়া হয়েছে সেই টাকা আপনাকে তিন কিস্তির মধ্যে পরিশোধ করতে হবে। এখন অনেকে মনে করতে পারেন এটা তো অনলাইনে ডিজিটাল লোন নিয়েছে আমি এখানে টাকা পরিশোধ না করলে কিছু হবে না। আপনি যদি টাকা পরিশোধ না করেন তাহলে সিটি ব্যাংঙ্ক থেকে আপনার ঋণ খেলাপি বাংলাদেশ ব্যাংকে জানানো হবে।

বিকাশ অফার ২০২২ । Bkash offer 2022

তারপর আপনার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এই ছিলো বিকাশ থেকে লোন নেওয়ার ধাপ এবং কিভাবে পরিশোধ করবেন সেই সকল কথা। যদি বিকাশ থেকে লোন নেওয়া সম্পর্কে আপনার আর কোন প্রশ্ন থাকে সেটা অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। আপনার প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করবো ইনশাআল্লাহ। যদি আর্টিকেলটি ভালো লাগে তাহলে আপনি চাইলে শেয়ার করতে পারেন।

4 thoughts on “বিকাশ দিয়ে ১০ হাজার টাকা ঋণ পাওয়ার নিয়ম।বিকাশ লোন ফরম ২০২২

  1. আমি বিকাশ অ্যাপে লোন নিতে চাই কিন্তু পারছি না

    • জ্বী ভাই আপনিও লোন নিতে পারবেন কিন্তু আপনাকে একটু ধৈর্য ধরতে হবে কারণ বিকাশ যতগুলো ইউজার আছে সবাইকে লোন দিবে এখন আপনাকে ভালো লেনদেন করতে হবে এবং বিকাশ ব্যালেন্স কোড অনুযায়ী সব সময় থেকে 5000 টাকা রাখতে হবে তাহলে আপনাকে বিকাশ একসময় আপনাকে লোন দিবে আর যদি আপনার লেনদেন ভালো করেন সব সময় ট্রানজেকশন ভালো করেন তাহলে অবশ্যই আপনাকে বিকাশ লেনদেন।

  2. Plz sir argent 20000 talar dorkar plz help me

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *